রবিবার - ২১শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

রবিবার - ২১শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ - ৬ই শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ - ১৫ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি

টেকনাফে বিদেশি জি-থ্রী রাইফেল,ম্যাগজিন ও ৫০রাউন্ড গুলি উদ্ধার,আটক-১ জামাল উদ্দীন – কক্সবাজার জেলা প্রতিনিধি কক্সবাজারের টেকনাফে অভিযান চালিয়ে একটি বিদেশি জি-থ্রী রাইফেলস,দুটি ম্যাগজিন ও ৫০রাউন্ড তাজা গুলি উদ্ধার করেছে পুলিশ। এসময় জড়িত মোঃ হেলাল উদ্দিন (২৫) নামে এক যুবককে আটক করা হয়। আটক হেলাল উদ্দিন কক্সবাজারের রামু উপজেলার পূর্ব জুমছড়ি (গর্জনিয়া) এলাকার মনির আহম্মদের ছেলে। পলাতক আসামি হলেন,কক্সবাজার মহেশখালী ধলঘাটা পন্ডিতের ডেইল এলাকার লুকমান হাকিমের ছেলে মুহাম্মদ জুয়েল রানা (৩৫)। সোমবার (১জুলাই) বিকেলে টেকনাফ মডেল থানার হল রুমে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান টেকনাফ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহাম্মদ ওসমান গনি।এসময় উপস্থিত ছিলেন,টেকনাফ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আব্দুল্লাহ আল মামুন। সংবাদ সম্মেলনে ওসি মুহাম্মদ ওসমান গনি বলেন,সোমবার সকালে তারই নেতৃত্বে থানার বিশেষ চৌকস একটি টিম অস্ত্র-গুলি উদ্ধারের সুদীর্ঘ ৭২ঘন্টা ব্যাপী সাঁড়াশি অভিযান চালায়।এসময় টেকনাফ পৌরসভাস্থ ঝর্ণা চত্ত্বর সংলগ্ন আল করম মসজিদের সামনে পাকা রাস্তার উপর বিশেষ চেকপোস্টে তল্লাশিকালীন এক যুবককে সুপারি বস্তাসহ আটক করতে সক্ষম হয়। তার অপর এক সহযোগী কৌশলে পালিয়ে যায়।পরে তার হেফাজতে থাকা সুপারির বস্তা তল্লাশি করে বিশেষ কায়দায় লুকানো অবস্থায় সিলিং যুক্ত প্লাস্টিকের বাটসহ একটি বিদেশি জি-থ্রী রাইফেলস,দুইটি ম্যাগজিন ও ৫০ রাউন্ড তাজা গুলি উদ্ধার করা হয়। ধৃতকে জিজ্ঞাসাবাদে তিনি উদ্ধারকৃত রাইফেলস,গুলির বিষয়ে কোন সদুত্তর দিতে পারে নাই।ধৃত ও পলাতক আসামি থানা এলাকা সহ কক্সবাজার জেলার বিভিন্ন এলাকায় অবৈধ অস্ত্র-গুলি কেনাবেচা’সহ বিভিন্ন অপরাধমূলক কার্যক্রমের সাথে সম্পৃক্ত বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে।তারা বিভিন্ন ধরণের অপরাধ মূলক কর্মকান্ড সংঘটনের উদ্দেশ্যে বর্ণিত অস্ত্র-গুলি নিজ হেফাজতে রাখেন। এই ব্যাপারে টেকনাফ মডেল থানায় একটি অস্ত্র আইনে মামলা রুজু করে আটক আসামিকে আদালতে পাঠানো প্রক্রিয়াধীন রয়েছে

টেকনাফে বিদেশি জি-থ্রী রাইফেল,ম্যাগজিন ও ৫০রাউন্ড গুলি উদ্ধার,আটক-১

 

কক্সবাজারের টেকনাফে অভিযান চালিয়ে একটি বিদেশি জি-থ্রী রাইফেলস,দুটি ম্যাগজিন ও ৫০রাউন্ড তাজা গুলি উদ্ধার করেছে পুলিশ। এসময় জড়িত মোঃ হেলাল উদ্দিন (২৫) নামে এক যুবককে আটক করা হয়।
আটক হেলাল উদ্দিন কক্সবাজারের রামু উপজেলার পূর্ব জুমছড়ি (গর্জনিয়া) এলাকার মনির আহম্মদের ছেলে।
পলাতক আসামি হলেন,কক্সবাজার মহেশখালী ধলঘাটা পন্ডিতের ডেইল এলাকার লুকমান হাকিমের ছেলে মুহাম্মদ জুয়েল রানা (৩৫)।
সোমবার (১জুলাই) বিকেলে টেকনাফ মডেল থানার হল রুমে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান টেকনাফ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহাম্মদ ওসমান গনি।এসময় উপস্থিত ছিলেন,টেকনাফ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আব্দুল্লাহ আল মামুন।
সংবাদ সম্মেলনে ওসি মুহাম্মদ ওসমান গনি বলেন,সোমবার সকালে তারই নেতৃত্বে থানার বিশেষ চৌকস একটি টিম অস্ত্র-গুলি উদ্ধারের সুদীর্ঘ ৭২ঘন্টা ব্যাপী সাঁড়াশি অভিযান চালায়।এসময় টেকনাফ পৌরসভাস্থ ঝর্ণা চত্ত্বর সংলগ্ন আল করম মসজিদের সামনে পাকা রাস্তার উপর বিশেষ চেকপোস্টে তল্লাশিকালীন এক যুবককে সুপারি বস্তাসহ আটক করতে সক্ষম হয়। তার অপর এক সহযোগী কৌশলে পালিয়ে যায়।পরে তার হেফাজতে থাকা সুপারির বস্তা তল্লাশি করে বিশেষ কায়দায় লুকানো অবস্থায় সিলিং যুক্ত প্লাস্টিকের বাটসহ একটি বিদেশি জি-থ্রী রাইফেলস,দুইটি ম্যাগজিন ও ৫০ রাউন্ড তাজা গুলি উদ্ধার করা হয়।
ধৃতকে জিজ্ঞাসাবাদে তিনি উদ্ধারকৃত রাইফেলস,গুলির বিষয়ে কোন সদুত্তর দিতে পারে নাই।ধৃত ও পলাতক আসামি থানা এলাকা সহ কক্সবাজার জেলার বিভিন্ন এলাকায় অবৈধ অস্ত্র-গুলি কেনাবেচা’সহ বিভিন্ন অপরাধমূলক কার্যক্রমের সাথে সম্পৃক্ত বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে।তারা বিভিন্ন ধরণের অপরাধ মূলক কর্মকান্ড সংঘটনের উদ্দেশ্যে বর্ণিত অস্ত্র-গুলি নিজ হেফাজতে রাখেন।
এই ব্যাপারে টেকনাফ মডেল থানায় একটি অস্ত্র আইনে মামলা রুজু করে আটক আসামিকে আদালতে পাঠানো প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn