মঙ্গলবার - ১৬ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

মঙ্গলবার - ১৬ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ - ১লা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ - ১০ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি

এফবিসিসিআইর সভাপতি পদে চট্টগ্রামের ব্যবসায়ী মো. মাহবুবুল আলমের নাম ঘোষণা

আগামী ২০২৩-২৫ মেয়াদে ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআইর সভাপতি পদে চট্টগ্রামের ব্যবসায়ী মো. মাহবুবুল আলমের নাম ঘোষণা দিয়েছেন সংগঠনটির সাবেক সভাপতিরা। গতকাল মঙ্গলবার রাজধানীর সোনারগাঁও হোটেলে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে এ ঘোষণা দেওয়া হয়।
‘ডেভেলপিং স্মার্ট লিডারশিপ টু ক্রিয়েট স্মার্ট ইকোনমি’ শীর্ষক ওই অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে সংগঠনটির সাবেক সভাপতি ও সংসদ সদস্য সফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন এ ঘোষণা দেন। এতে উপস্থিত ব্যবসায়ী নেতারা সমর্থন জানান।
এর দুই দিন আগে সংগঠনটির সাবেক সভাপতিরা বৈঠক করে আগামী দুই বছরের জন্য এফবিসিসিআইর সভাপতি হিসেবে মাহবুবুল আলমকে নির্বাচিত করার বিষয়ে একমত হয়েছেন বলে অনুষ্ঠানে জানানো হয়। মাহবুবুল আলম বর্তমানে চট্টগ্রাম চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগবিষয়ক উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান বলেন, ব্যবসায়ীরা দেশের অর্থনীতির চালিকাশক্তি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ বর্তমানে যে অবস্থানে এসেছে, সেটা প্রশংসনীয়। বেসরকারি খাতের কারণে এ অবস্থায় আসা সম্ভব হয়েছে। তবে, বর্তমানে ডলার সংকট, মূল্যস্ফীতি এগুলো সারাবিশ্বে আছে। বাংলাদেশেও কিছুটা আছে।
তিনি বলেন, সরকার ব্যবসায়ীদের সব সুযোগসুবিধা দিচ্ছে। ব্যবসায়ীদের বিদ্যমান সমস্যা সমাধানের জন্য প্রধানমন্ত্রী কোরবানি ঈদের পর বসবেন। প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, তিনি সব ব্যবসায়ীর কথা শুনবেন। আশা করি, ব্যবসায়ী সমাজের জন্য সেটি অনেক ভালো হবে।
এফবিসিসিআই সম্পর্কে তিনি বলেন, এক সময় এফবিসিসিআইতে প্রক্সি ভোটে নেতা নির্বাচিত হতো। এখন সেই পদ্ধতি নেই। এখানে যোগ্যরাই নির্বাচিত হয়ে আসেন।
সালমান এফ রহমান বলেন, দীর্ঘ সময় পর চট্টগ্রাম থেকে নেতা পাচ্ছে এফবিসিসিআই। এটা একটা ভালো দিক।
এফবিসিসিআইর বর্তমান সভাপতি জসিম উদ্দিন বলেন, এফবিসিসিআইতে কাজ করার অনেক সুযোগ আছে। ভালো লিডার থাকলে সেগুলো সম্ভব। সরকার বলেছে, দেশের অর্থনীতির ৮২ শতাংশ বেসরকারি খাতের অবদান। এ সংগঠনে উপযুক্ত নেতা দরকার।
সাবেক সভাপতি এ. কে. আজাদ বলেন, এ সংগঠনে যিনি যখন দায়িত্বে থাকেন, তখন তিনি কীভাবে সংগঠনটিকে পরিচালনা করেন সেটাই বিবেচনার বিষয়। তিনি বলেন, এফবিসিসিআইতে অনেক সদস্য বেড়েছে। সেবার মানও সেই হারে বাড়াতে হবে। এফবিসিসিআইকে পুনর্গঠন করা দরকার বলেও মত দেন তিনি।
মীর নাসির বলেন, আন্তর্জাতিক ও দেশীয় নানা কারণে অর্থনীতি ক্রান্তিকাল পার করছে। এমন পরিস্থিতি মোকাবিলায় এবং ব্যবসায়ী সমাজকে নেতৃত্ব দেওয়ার জন্য মাহবুবুল আলম যোগ্য নেতৃত্ব দিতে পারবেন বলেই আশা করি।
সাবেক সভাপতি মাহবুবুর রহমান বলেন, মতবিরোধ ভুলে সবাইকে ভোটের মাধ্যমে পরিচালনা পর্ষদ গঠন করতে হবে। আব্দুল আউয়াল মিন্টু বলেন, অর্থনীতিকে এগিয়ে নিতে স্মার্ট ও যোগ্য নেতৃত্ব দরকার। সেই যোগ্যতা আছে মাহবুবুল আলমের।
শুভেচ্ছা বক্তব্যে সাবেক সভাপতি সফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন বলেন, এফবিসিসিআইর সাবেক সভাপতি ও অন্য ব্যবসায়ী নেতাদের সর্বসম্মতিক্রমে চট্টগ্রাম চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মাহবুবুল আলমকে পরবর্তী সভাপতি নির্বাচিত করার বিষয়ে সিদ্ধান্ত হয়েছে।

কাজী আকরাম উদ্দিন আহমেদ বলেন, আমাদের মাঝে ভুল বোঝাবুঝি নেই।
মাহবুবুল আলম বলেন, এফবিসিসিআইর বর্তমান ধারা অব্যাহত থাকবে। যেখানে সমস্যা, সেখানে সমাধান– এটাই হবে আগামী নেতৃত্বের স্লোগান।

উল্লেখ্য, আগামী ৩১ জুলাই এফবিসিসিআইর পরিচালক পদে নির্বাচন।

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn