মঙ্গলবার - ১৬ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

মঙ্গলবার - ১৬ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ - ১লা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ - ১০ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি

চট্টগ্রামে ধর্ষণ মামলার যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামী ৭ বছর পর গ্রেফতার

 

চট্টগ্রাম  ভুজপুর থানার ধর্ষণ মামলার যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত ওয়ারেন্ট ভুক্ত পলাতক আসামী মোঃ হাসানকে দীর্ঘ ৭ বছর পলাতক থাকার পর সীতাকুন্ড হতে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব।

শুক্রবার রাতে সীতাকুন্ড থানাধীন পাকা মসজিদ এলাকায় আত্মগোপনে থাকা অবস্থায় হাসানকে র‍্যাব আটক করে।

র‍্যাব সূত্রে জানা যায়, ভুক্তভোগী ভিকটিম ভুজপুর এলাকায় তার মা বাবার সাথে বসবাস করতেন। গত ৬ ডিসেম্বর ২০১৬ইং তারিখে ভিকটিমের মা তাকে বাড়িতে একা রেখে পাশ্ববর্তী গ্রামে তার অপর মেয়ের বাড়িতে বেড়াতে যান। ভিকটিমের মা বাড়িতে না থাকায় পরদিন ভিকটিমের বাবা ভিকটিমকে তার চাচার বাড়িতে রেখে কাজে বের হন। পরদিন ( ৭ ডিসেম্বর) ভিকটিম তার চাচার বাড়িতে অবস্থানকালীন তাদের প্রতিবেশী ফারহানা তাকে তাদের বাড়িতে ডেকে নিয়ে যায়। সেখানে আনুমানিক সাড়ে ৭ টার দিকে ফারহানা ভিকটিমকে আসামী মোঃ হাসানের কাছে রেখে চলে আসে। পরবর্তীতে হাসান গামছা দিয়ে ভিকটিমের মুখ বেঁধে রামগড় টি-আর চা বাগানে নিয়ে যায় এবং ভিকটিমের ইচ্ছের বিরুদ্ধে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। ধর্ষণের পর আসামী তার বন্ধুর সাথে মোবাইল ফোনে কথা বলার সময় ভিকটিম কৌশলে পালিয়ে যায় এবং তার গ্রামের অপর এক চাচার বাড়িতে আশ্রয় নেয়।

পরবর্তীতে ভিকটিমের বাবা উক্ত ঘটনা শুনে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানকে জানালে তিনি থানায় যাওয়ার জন্য পরামর্শ দেন। থানা পুলিশ তার মেয়েকে চিকিৎসার জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করলে সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে ওসিসিতে ভর্তি করান। উক্ত ঘটনায় ভিকটিমের বাবা মোঃ কালা মিয়া বাদী হয়ে চট্টগ্রাম জেলার ভুজপুর থানায় ২ জনকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেন যার মামলা নং -০৪(১১)১৬ ধারা-৯(১)/৩০; ২০০০ সালের নারী ও শিশু নির্যাতন ও দমন আইন (সংশোধিত ২০০৩)। মামলা দায়েরের পর হতে বর্ণিত ধর্ষক আইন শৃংখলা বাহিনীর নিকট হতে গ্রেফতার এড়াতে এলাকা ছেড়ে আত্মগোপনে চলে যায়।

জানা যায়,মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা তদন্ত শেষে বর্ণিত ধর্ষকের বিরুদ্ধে বিজ্ঞ আদালতে পুলিশ রিপোর্ট দাখিল করেন। বিজ্ঞ আদালত দীর্ঘ বিচার কার্যক্রম শেষে ধর্ষক মোঃ হাসানকে যাবজ্জীবন কারাদন্ড ও ৩,০০,০০০/= টাকা অর্থদন্ড অনাদায়ে ১ বছরের সশ্রম কারাদন্ডে দন্ডিত করেন এবং গ্রেফতারী পরোয়ানা জারি করেন।

র‌্যাব-৭ এর সিনিয়র সহকারী পরিচালক নুরুল আবছার বলেন, ধর্ষণ মামলার যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামী হাসানকে গ্রেফতারের লক্ষ্যে গোয়েন্দা নজরদারী অব্যাহত রাখে। নজরদারীর এক পর্যায়ে র‌্যাব-৭, চট্টগ্রাম গোপন সূত্রে জানতে পারে যে, বর্ণিত আসামী চট্টগ্রাম জেলার সীতাকুন্ড থানাধীন পাকা মসজিদ এলাকায় আত্মগোপনে আছে। উক্ত তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাব-৭, চট্টগ্রামের একটি আভিযানিক দল গত ০২ জুন ২০২৩ ইং তারিখে বর্ণিত স্থানে অভিযান পরিচালনা করে তাকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়। ।

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn