রবিবার - ২১শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

রবিবার - ২১শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ - ৬ই শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ - ১৫ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি

ফটিকছড়িতে  স্ত্রী হত্যা, ২৪ বছর পলাতক থাকার পর স্বামী আটক

ফটিকছড়ির নাজিরহাটের এবিসিতে ২৪ বছর আগে স্ত্রীকে হত্যার ঘটনায় যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামি মোঃ তোফায়েল আহমেদকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব।

রবিবার (১৪ মে) রাতে উপজেলার বাবুনগর এলাকা থেকে পলাতক তোফায়েল আহমেদকে আটক করা হয়।

আটক তোফায়েল আহমেদ বাবুনগর গ্রামের মৃত নুরুজ্জামানের পুত্র।

র‍্যাব সূত্রে জানা যায়, গত ১৩ জুন ১৯৯৯ সালের ১৩ জুন ফটিকছড়ি থানাধীন দৌলতপুর এলাকায় পারিবারিক কলহের জেরে নিজ স্ত্রীকে হত্যা করে মোঃ তোফায়েল আহমেদ। সেই ঘটনায় নিহত ভিকটিমের ভাই মোঃ জহুরুল ইসলাম বাদী হয়ে নিহত ভিকটিমের স্বামী মোঃ তোফয়েল আহমেদ’কে আসামী করে চট্টগ্রামের ফটিকছড়ি থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছিলেন। পরবর্তী সময়ে উক্ত হত্যা কান্ডের ঘটনায় অভিযুক্ত প্রধান আসামী মোঃ তোফায়েল আহমেদ আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী কর্তৃক গ্রেফতার হন। জামিনে মুক্তি নিয়ে বিজ্ঞ আদালতে কোন হাজিরা না দিয়ে পলাতক হয়ে যান আসামী মোঃ তোফায়েল আহমেদ। পলাতক থাকা অবস্থায় বিজ্ঞ আদালত আসামী মোঃ তোফায়েল আহমেদ এর নামে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারী করেন।

র‍্যাব সূত্রে জানা যায়, পরবর্তীতে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা তদন্ত শেষে নিহত ভিকটিমের স্বামী তোফায়েল আহমেদকে অভিযুক্ত করে আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেন এবং গত ২০১৬ সালে মামলাটি বিচারের জন্য চট্টগ্রাম জেলা ও দায়রা জজ আদালত থেকে বিশেষ ট্রাইব্যুনালে পাঠানো হয়। এরই প্রেক্ষিতে চলতি মাসের ৮ তারিখ জননিরাপত্তা বিঘ্নকারী অপরাধ দমন ট্রাইব্যুনাল আদালত, চট্টগ্রাম উক্ত মামলার ১২ জন সাক্ষীর মধ্যে ৯ জন সাক্ষীর সাক্ষ্য গ্রহণ শেষে অভিযুক্ত মামলার আসামী তোফায়েল আহমেদকে যাবজ্জীবন কারাদন্ড ছাড়াও ১০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ছয় মাসের কারাদন্ডে দন্ডিত করেন।

এদিকে আদালত কর্তৃক রায় ঘোষনার পর উক্ত হত্যার ঘটনায় অভিযুক্ত যাবজ্জীবন কারাদন্ড প্রাপ্ত একমাত্র পলাতক আসামী মোঃ তোফায়েল আহমেদ’কে গ্রেফতারের লক্ষ্যে র‌্যাব-৭, চট্টগ্রাম গোয়েন্দা নজরদারী এবং তথ্য প্রযুক্তির ব্যবহার অঅব্যাহত রাখে। এরই প্রেক্ষিতে র‌্যাব-৭, চট্টগ্রাম একটি বিশেষ সংবাদের মাধ্যমে জানতে পারে যে, উক্ত হত্যার ঘটনায় অভিযুক্ত যাবজ্জীবন কারাদন্ড গ্রাপ্ত একমাত্র আসামী মোঃ তোফায়েল আহমেদ দীর্ঘদিন বিভিন্ন জায়গায় পলাতক থাকার পর বর্তমানে ফটিকছড়ি থানাধীন বাবুনগর এলাকায় নিজ বাসা বাড়িতে অবস্থান করছেন। উক্ত তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাব-৭, চট্টগ্রামের একটি আভিযানিক দল গতকাল ১৪ মে তারিখ আনুমানিক রাত আড়াইটার দিকে অভিযান পরিচালনা করে তোফায়েল আহমেদকে আটক করে।

র‍্যাব -৭ এর সহকারী পরিচালক নুরুল আবছার বলেন,গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গতকাল মধ্যরাতে অভিযান চালিয়ে তোফায়েলকে আটক করি।পরবর্তীতে উপস্থিত স্বাক্ষীদের সামনে আটককৃত আসামীকে জিজ্ঞাসাবাদে তিনি নিজ স্ত্রীকে হত্যা করার কথা অকপটে স্বীকার করেন।গ্রেফতারকৃত আসামীকে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনের নিমিত্তে ফটিকছড়ি থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn