রবিবার - ২১শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

রবিবার - ২১শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ - ৬ই শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ - ১৫ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি

রেলওয়ে জিএমকে ফজলে করিমের ফোন : সপ্তাহের মধ্যে ইউরোপীয়ান ক্লাব খালির নির্দেশ

রেলওয়ে জিএমকে ফজলে করিমের ফোন : সপ্তাহের মধ্যে ইউরোপীয়ান ক্লাব খালির নির্দেশ

” অগ্নিকন্যা প্রীতিলতা ওয়াদ্দেরারের স্মৃতি বিজড়িত ঐতিহাসিক ‘রেলওয়ে ইউরোপীয়ান ক্লাব’ আগামী ১ সপ্তাহের মধ্যে খালি করার নির্দেশ দিয়েছেন রেলপথ মন্ত্রণালয় সংক্রান্ত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি এবিএম ফজলে করিম চৌধুরী এমপি।

তিনি রেলওয়ে জিএমকে উদ্দেশ্য করে বলেন, ভারতের প্রয়াত রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জী ইউরোপীয়ান ক্লাব পরিদর্শনের সময় রেলওয়ের কার্যক্রম এখান থেকে সরিয়ে ক্লাবটি খালি করা হলেও কিছুদিন পর পুনরায় রেলওয়ের কিছু দাপ্তরিক কাজ চলছে। বার বার বলার পরও ইতিহাসের এই সম্মানীয় জায়গাকে যথাযথ সম্মান প্রদর্শন করতে ব্যর্থ হয়েছে রেল কর্তৃপক্ষ।
এ সময় তিনি , আগামী ১ সপ্তাহের মধ্যে ইতিহাসের স্মৃতিবিজড়িত ইউরোপীয়ান ক্লাবকে পুরোপুরি উদ্ধার করা না গেলে চট্টগ্রামের ইতিহাসপ্রিয় জনগণ যদি কোন দুর্বার গণ আন্দোলন গড়ে তুলেন জনগণের সাথে থাকবেন বলে সাফ জানিয়ে দেন।

ইউরোপিয়ান বাংলাদেশ ফোরাম ইবিএফ এর পক্ষে শহীদ হিরণ্য কুমার দত্তের সন্তান বিশিষ্ট কলামিস্ট রোটারিয়ান প্রদীপ কুমার দত্ত ও ভাষাসৈনিক ও বীর মুক্তিযোদ্ধা এ.কে ফজলুল হকের সন্তান রোটারিয়ান লেখক-সাংবাদিক শওকত বাঙালি ১৪ মে রবিবার অপরাহ্নে এবিএম ফজলে করিম চৌধুরীর সাথে তাঁর বাসভবনে মতবিনিময়কালে প্রীতিলতার স্মৃতি বিজড়িত ইউরোপীয়ান ক্লাবের প্রসঙ্গ তুললে তিনি তাৎক্ষণিকভাবে রেলওয়ে জিএমকে এসব কথা বলেন।

পরে ফজলে করিম চৌধুরী ইউরোপিয়ান ক্লাব উদ্ধার আন্দোলনের সাথে জড়িত বরেণ্য আইনজ্ঞ অ্যাডভোকেট রানা দাশ গুপ্তের সাথেও কথা বলেন এবং এ বিষয়ে চট্টগ্রামের সুশীল সমাজের নাগরিকবৃন্দের ভূমিকা প্রত্যাশা করেন।
এদিকে, বাংলাদেশে ১৯৭১’এ পাক বাহিনী কর্তৃক সংঘটিত জেনোসাইডের আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি নিয়ে বাংলাদেশ সরকার, সিভিল সোসাইটি এবং মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের প্রবাসী বাংলাদেশী সংগঠনসমুহ নিরলসভাবে যে কাজ করছে তারই ধারাবাহিকতায় ইবিএফ’এর উদ্যোগে আগামী ২০-২৬ মে ইউরোপীয়ান পার্লামেন্টারিয়ান, জেনোসাইড বিশেষজ্ঞ, বিদেশী সাংবাদিকের সমন্বয়ে পাঁচজনের যে দলটি বাংলাদেশে আসছে তাঁদেরকে রাউজানের জগৎমল্লপাড়া এবং ঊনসত্তরপাড়া বধ্যভূমি পরিদর্শনের আহবান জানান তিনি। এ ব্যাপারে সহযোগিতার জন্য স্থানীয় চেয়ারম্যান রোকন উদ্দিন ও পৌর কমিশনার হাসানকেও নির্দেশ দেন এই সংসদ সদস্য।

এ সময় প্রতিনিধি দলের সমন্বয়ক প্রদীপ কুমার দত্ত ও শওকত বাঙালি ছাড়াও ডাবুয়া ইউপি চেয়ারম্যান আবদুর রহমান লালু, স্থানীয় রাজনীতিক কামরুল ইসলাম বাহাদুর, ইরফান আহমেদ চৌধুরী, ম্যালকম চক্রবর্তী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn